১৩ জুন, ২০২১রবিবার

১৩ জুন, ২০২১রবিবার

খুনের মামলায় পাঞ্জাব থেকে গ্রেফতার বিখ্যাত কুস্তিগীর সুশীল কুমার

খুনের মামলায় অবশেষে গ্রেপ্তার হলেন কুস্তিগীর সুশীল কুমার। তার মত এরকম আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন খেলোয়াড়ের খুনের মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার ঘটনা ভারতে অত্যন্ত বিরল। বেশ কয়েকদিন ধরে দিল্লি পুলিশের যাবতীয় চেষ্টাকে ব্যর্থ করে তিনি আত্মগোপন করে থাকতে সক্ষম হয়েছিলেন। যদিও দু’দিন আগেই দিল্লি হাইকোর্ট এই আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন কুস্তিগীরের অন্তর্বর্তীকালীন জামিনের আবেদন খারিজ করে দেয়। শনিবার সন্ধ্যেবেলায় পাঞ্জাবের এক গ্রাম থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। সূত্র মারফত খবর তাকে দিল্লি নিয়ে আসার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। এই কুস্তিগীরের সঙ্গেই গ্রেপ্তার করা হয়েছে তার সহযোগী অজয় কুমার’কে।

 

গত ৪ মে দিল্লির ছত্রশাল স্টেডিয়ামের পার্কিং লটে কুস্তিগীর সাগর রানা এবং তার দুই বন্ধুর সঙ্গে আচমকাই বচসায় জড়িয়ে পড়ে সুশীল কুমার ও তার সঙ্গী সাথীরা। হঠাৎই সুশীল কুমার মারধর করে সাগর রানা’কে। এই ঘটনায় ওই তরুণ কুস্তিগীরের মৃত্যু হয় এবং তার দুই বন্ধুকে গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেই দুই বন্ধু পুলিশকে জানায় সুশীল কুমার নিজে খুন করেছেন সাগর রানা’কে। এরপরই সুশীল কুমারের বিরুদ্ধে খুনের মামলা দায়ের করে দিল্লি পুলিশ। ইতিমধ্যেই সুশীল কুমার উধাও হয়ে যান। তাকে কোনমতেই খুঁজে পাওয়া যায় না। একসময় তার খোঁজ পেতে ব্যর্থ হয়ে দিল্লি পুলিশ সুশীল কুমারের সন্ধান পাওয়ার জন্য তার মাথার দাম এক লক্ষ টাকা ঘোষণা করে। তার সহযোগী অজয় কুমারের জন্য মাথার দাম ঘোষণা করা হয় পঞ্চাশ হাজার টাকা।

আরও পড়ুন  
করোনারি ভারতীয় স্ট্রেনের বিরুদ্ধে কোভিশিল্ড ৮০ শতাংশ কার্যকরী জানালো ইংল্যান্ড

এরইমধ্যে সুশীলকুমার অন্তর্বর্তীকালীন জামিনের আবেদন জানিয়ে দিল্লি হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়। কিন্তু দিল্লি হাইকোর্ট তার জামিনের আবেদন খারিজ করে দিয়ে জানায় তার বিরুদ্ধে যে খুনের অভিযোগ আছে তা অত্যন্ত গুরুতর। এই ঘটনায় সরাসরি তার বিরুদ্ধে পর্যাপ্ত প্রমাণ আছে, তাই তাকে অন্তর্বর্তীকালীন জামিন দেওয়া সম্ভব নয়। এরপরেও দু’দিন তার খোঁজ পাওয়া যায়নি।

 

আচমকাই আজ গোপন সূত্রে খবর পেয়ে দিল্লি পুলিশ পাঞ্জাবের একটি গ্রামে হানা দেয়। সেখানে সুশীল কুমার এবং তার সহযোগী অজয় কুমার’কে গ্রেফতার করা হয়। উল্লেখ্য অলিম্পিকে এই কুস্তিগীরের দু’টি পদক। কাছে তিনি প্রথমবার ব্রোঞ্জ জিতেছিলেন। পরেরবার রুপো জেতেন। তিনি প্রথম ভারতীয় হিসেবে অলিম্পিকে ব্যক্তিগত ইভেন্টে দু’টি পদক লাভ করার কৃতিত্ব অর্জন করেন। তারপর সাইনা নেওয়াল একই কৃতিত্বের অধিকারী হন। এরকম একজন শীর্ষস্থানীয় ক্রীড়াবিদের নাম খুনের ঘটনায় জড়িয়ে যাওয়ায় অনেকেই অবাক হয়েছেন। যদিও দিল্লি পুলিশের দাবি তাদের কাছে এই কুস্তিগীরের বিরুদ্ধে অকাট্য প্রমাণ আছে।

 

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Stay Connected

7,808FansLike
19FollowersFollow

Latest Articles

error: Content is protected !!