৪ আগস্ট, ২০২১বুধবার

৪ আগস্ট, ২০২১বুধবার

বাতকর্মের চোটে দাম্পত্য জীবন সঙ্কটে মার্কিন মহিলার

যেকোনো সম্পর্কে পারস্পারিক শ্রদ্ধাবোধ অত্যন্ত জরুরী। কিন্তু একজন যদি অন্যের অস্বস্তির কারণ না বুঝে বারবার একই ঘটনা ঘটাতে থাকে তখন সম্পর্কের মূল সুর যে কেটে যায় তা বলাই বাহুল্য। তা বলে একটি সম্পর্কের মূল বন্ধন ঘুঝিয়ে দেওয়ার কারণ কিনা বাতকর্ম? এই অবাক করা বিষয়টি সম্প্রতি এক মার্কিন মহিলার সোশ্যাল মিডিয়া পোস্ট থেকে সামনে উঠে এসেছে।

 

ওই মহিলা অনুযোগের সুরে জানিয়েছেন তিনি বিয়ের আগে থেকেই স্বামীর বাতকর্মের বদভ্যাস সম্বন্ধে জানতেন। তবু অন্তরে টানে মানিয়ে গুছিয়ে নিয়ে চলছিলেন। কিন্তু গুণধর স্বামীর বাতকর্মের জন্য তাকে কর্মক্ষেত্রেও অপ্রস্তুত হতে হয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট ওই মার্কিন মহিলা পরিষ্কার জানিয়েছেন বাতকর্মকে কেন্দ্র করে তাদের সম্পর্ক এমন জায়গায় গিয়ে পৌঁছেছে যে তা টিকিয়ে রাখাই দুঃসহ হয়ে উঠেছে।

 

তা কি ঘটেছে ওই মহিলার সঙ্গে? ওই সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টেই মহিলাটি জানিয়েছেন তিনি সবেমাত্র দু’মাস একটি চাকরিতে যোগ দেওয়ার পর তার স্বামীর সঙ্গে সহকর্মীদের পরিচয় করিয়ে দেওয়ার জন্য একদিন একটি রেস্তোরাঁয় সবাইকে ডাকেন। সেখানে তার বস’ও এসেছিলেন। কিন্তু তার বস যখন স্বামীর সঙ্গে হাত মেলানোর প্রক্রিয়া শুরু করেন তখনই তার স্বামী অম্লান বদনে এক বিকট শব্দে বাতকর্ম করেন! সেই সঙ্গে দুর্বিষহ দুর্গন্ধ ছিল।

আরও পড়ুন  
বিধ্বংসী অগ্নিকাণ্ড মহেশতলার শিল্পাঞ্চলে

ওই মহিলা এরপর আরও অবাক করে জানান বাতকর্ম করা সত্বেও তার স্বামীর মধ্যে কোনরকম ভাব-ভাবান্তর দেখা যায়নি। তিনি অবলীলায় একই পরিস্থিতিতে বাকিদের সঙ্গে করমর্দন করেন। কিন্তু এই গোটা ঘটনায় তার সহকর্মীরা অত্যন্ত খুন্ন হয়েছিলেন বলে ওই মহিলার দাবি। তারা দ্রুত সেখান থেকে চলে যান বলে তিনি জানান।

 

এছাড়া ওই মহিলা জানিয়েছেন যখন-তখন যে কোনও অনুষ্ঠানে সর্বসমক্ষে বিকট শব্দে বাতকর্ম করা তার স্বামী অভ্যেসে পরিণত করে ফেলেছে। এমনকি বাড়িতে থাকাকালীন তিনি শৌচালয়ে না গিয়ে ঘরের মধ্যেই বাতকর্ম করতেন। এ বিষয়ে তিনি স্বামীকে অজস্রবার বোঝানোর চেষ্টা করেও কোনও লাভ হয়নি। কারণ তার স্বামীর কাছে নাকি এটা খুবই স্বাভাবিক ব্যাপার! তিনি এই আচরণের প্রতিবাদ করলে উল্টে এই বিষয়টি মেনে নেওয়ার জন্য তাকে পরামর্শ দেন স্বামী।

 

এই পরিস্থিতিতে ওই মার্কিন মহিলা নেটিজেনদের কাছে সমস্যার সমাধানের জন্য পরামর্শ চেয়েছেন। তা আপনি কোন‌ও পরামর্শ দিয়ে ওই মহিলাকে সাহায্য করতে পারেন? একটি ভেবে দেখুন না যদি হয়!

 

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Stay Connected

7,808FansLike
19FollowersFollow

Latest Articles

error: Content is protected !!